ঢাকাসোমবার , ২৭ ডিসেম্বর ২০২১
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

কেএফসির হট উইংসে লোমসহ আস্ত মুরগির মাথা!

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
ডিসেম্বর ২৭, ২০২১ ১০:৩৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

প্রতিদিনের বাংলাদেশঃ কেএফসির সুস্বাদু হট উইংস খেতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু প্লেটে রাখা জিভে জল আনা সেই হট উইংসে কামড় দিতেই আঁতকে উঠলেন এক নারী। দেখলেন মুরগির ডানা নয়, আস্ত মুরগির মাথা দিয়েই তৈরি করা হয়েছে এটি। খবর এই সময়ের।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এমনই এক খবর। যেখানে ব্রিটেন নিবাসী গ্যাব্রিয়েল দাবি করেন, জনপ্রিয় রেস্তোরাঁ চেন কেএফসির হট উইংস অর্ডার করে তিনি পেয়েছেন আস্ত এক মুরগির মাথা! পালক, ঠোঁট, চোখসহ সেই মুরগির মাথা ভেজে দিয়ে দিয়েছে রেস্তোরাঁ। এমনই অভিযোগ তুলেছেন ওই গ্রাহক। তারপর থেকেই প্রশ্ন উঠেছে কেএফসির খাবারের মান নিয়ে।

গত ৩ ডিসেম্বর টেকআওয়ে ট্রমা নামে একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ব্রিটেন নিবাসী গ্যাব্রিয়েলের এই আজব অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করে একটি টুইট করা হয়। পোস্ট করা হয় মুরগির মাথা দেয়া কেএফসির খাবারের ছবিটিও। যেখানে উল্লেখ করা হয়, কেএফসি থেকে মিল বক্সের অর্ডার করেছিলেন গ্যাব্রিয়েল। বক্স খুলে হট উইংসে কামড় বসাতে গিয়েই চক্ষু চড়কগাছ হয় তার। হট উইংসের বদলে ঠোঁট-পালকসহ আস্ত একটি মুরগির মাথা খুঁজে পান গ্যাব্রিয়েল। যা নিয়ে হইচই পড়ে যায় নেটপাড়ায়। জনপ্রিয় ফ্রায়েড চিকেন রেস্তোরাঁ চেনের গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

টুইটার ছবিটি ভাইরাল হতেই তদন্তে নামে কেএফসি। কেএফসির পক্ষ থেকে একটি অফিশিয়াল বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, ‘আমরাও এই ছবিটি দেখে বিস্মিত, হতভম্ব। আমরা এই ঘটনার তদন্ত করছি। তবে এটুকু বলতে পারি আমরা আসল মাংস দিয়েই আমাদের সমস্ত পদ তৈরি করি। এই জন্যই আমরা গর্বিত। যথেষ্ট যত্ন নিয়ে আমাদের রেস্তোরাঁগুলিতে পদ তৈরি করা হয়। এ রকম ঘটনা সত্যিই বিরল।’

পাশাপাশি অভিযোগকারী গ্যাব্রিয়েলের কাছেও ক্ষমা চেয়েছে কেএফসি। গ্যাব্রিয়েল এবং তার গোটা পরিবারকে কেএফসির পক্ষ থেকে বিনামূল্যে একদিন খাওয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গে রেস্তোরাঁর হেঁশেলে উপস্থিত থেকে পদটি তৈরির গোটা প্রস্তুতি নিজে দেখারও আবেদন করা হয়েছে।

কেএফসির বক্তব্য, ‘আমরা আশাবাদী গ্যাব্রিয়েল আবার আমাদের রেস্তোরাঁকে ফাইভ স্টার রেটিং দেবেন।’

আপনার মন্তব্য লিখুন