ঢাকারবিবার , ২৫ ডিসেম্বর ২০২২
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নৌকা-মার্কায় ভোট না দিলে হাত-পা ভেঙে-দেশ থেকে বাহির করে দেয়া হবে

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
ডিসেম্বর ২৫, ২০২২ ৬:৪২ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আশরাফুল হক,লালমনিরহাটঃ লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় ইউপি উপ নির্বাচনে নৌকায় ভোট না দিলে দেশছাড়া করার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে।

রোববার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুরে গড্ডিমারী ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামলসহ ২২ জনের বিরুদ্ধে হাতীবান্ধা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ব্রজেন্দ্রনাথ (৪৩) নামে এক ব্যক্তি।

অভিযোগকারী ব্রজেন্দ্রনাথ উপজেলার পূর্ব সিন্দুর্না গ্রামের দেবেশ্বর বর্মণের ছেলে। অভিযোগে সুত্রে জানা গেছে, হাতীবান্ধা উপজেলার সিন্দুর্না ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যান পদে উপ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন আগামী ২৯ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তিনজন প্রার্থী।


আওয়ামী লীগের নৌকা প্রার্থী নুরুল আমীন ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে প্রচারের শুরু থেকে বাধা ও হামলা ভাঙচুরের অভিযোগ করে আসছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফুল ইসলাম আরিফ। গত শনিবার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ৮/৯টি মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে প্রচারণায় পূর্ব সিন্দুর্না গ্রামে যান পাশের গড্ডিমারী ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামল। এ সময় পূর্ব সিন্দুর্না গ্রামের লোকজনকে ২৯ ডিসেম্বর নৌকায় ভোট দিতে বলা হয়। এতে রাজি না হওয়ায় ওই গ্রামের ব্রজেন্দ্রনাথ ও তার স্ত্রীর ওপর ক্ষিপ্ত হন তারা। এ সময় শ্যামলের লোকজন তাদের ওপর চড়াও হয়ে লোহার রড আর ডেগার উচিয়ে দেশছাড়া করার হুমকি দিয়ে চলে যান। তারা আরও বলেন, ভোট না দিলে পিটিয়ে হাত পা ভেঙে দেশ থেকে বের করে দেওয়া হবে। এখানে থাকলে নৌকায় ভোট দিতে হবে।

এ ঘটনায় পুরো এলাকাবাসী আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে বলে দাবি করে নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তাসহ ন্যায় বিচার চেয়ে হাতীবান্ধা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ব্রজেন্দ্রনাথ। এ অভিযোগে গড্ডিমারী ইউপি চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিক শ্যামলসহ ২২ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।

ইতোপূর্বেও এ গ্রামে একাধিকবার হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। আহত হয়েছেন অনেকেই। দুই দিনের হামলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ ২২ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। ভোটের সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত করতে পুরো এলাকায় আতঙ্ক ও ভীতিকর পরিস্থিতি সৃস্টি করা হয়েছে বলেও দাবি করেন ওই স্থানীয়রা। অভিযুক্ত গড্ডিমারী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আবু বক্কর সিদ্দিকের মোবাইলে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলমকে ফোন দিলে কল কেটে দিয়ে মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখেন।

লালমনিরহাট পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, উপ নির্বাচনকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। তবে ভয়ভীতি বা অপ্রীতিকর ঘটনার অভিযোগ পেলে তদন্ত করে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন