ঢাকামঙ্গলবার , ১০ মে ২০২২
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

বিয়ের দাবিতে পুলিশ সদস্যের বাড়িতে কলেজছাত্রীর

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
মে ১০, ২০২২ ৩:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি | গাজীপুরের শ্রীপুরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে ৫ দিন ধরে অবস্থান করছে এক কলেজছাত্রী। গত শুক্রবার (৬ মে) বিকেলে উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের সোনাব গ্রামের প্রেমিক পুলিশ সদস্য জাহাঙ্গীর আলমের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছে ওই ছাত্রী। প্রেমিকার উপস্থিতি টের পেয়ে প্রেমিক জাহাঙ্গীর বাড়ি থেকে পালিয়ে তার কর্মস্থল চট্টগ্রাম পুলিশ লাইনে চলে যায়।

প্রেমিক পুলিশ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম বাংলাদেশ পুলিশের কনস্টেবল পদে চট্টগ্রাম পুলিশ লাইনে কর্মরত রয়েছেন। সে উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের সোনাব গ্রামের মোহাম্মদ ছাত্তার ঢালীর ছেলে। প্রেমিকা তামান্না পালোয়ান একই ইউনিয়নের পাশের ধামলই গ্রামের জসিম উদ্দিন পালোয়ানের মেয়ে। সে ঠাকুরগাঁও টেকনিক্যাল কলেজের ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

কলেজ ছাত্রী তামান্না পালোয়ান প্রতিদিনের বাংলাদেশকে জানিয়েছেন, দীর্ঘ চার থেকে পাঁচ বছর যাবত পুলিশ সদস্য জাহাঙ্গীরের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ঈদের ছুটিতে বাড়িতে এসে জাহাঙ্গীর আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে। আমি তাকে বিয়ের কথা বললে সে হঠাৎ করে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। তাই বাধ্য হয়ে বিয়ের দাবিতে আমি তার বাড়িতে চলে আসি। আজ পাঁচদিন কোনোরকমে খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছি। এতে শারীরিকভাবে আমি অসুস্থ হয়ে যাচ্ছি। প্রেমিক জাহাঙ্গীরের বাড়ি থেকে আমার মরদেহ যাবে। সে আমাকে বিয়ে না করা পর্যন্ত আমি আমার প্রেমিক জাহাঙ্গীরের বাড়িতেই অবস্থান করবো।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য জাহাঙ্গীর আলম মুঠোফোনে প্রতিদিনের বাংলাদেশকে জানিয়েছেন, তামান্নার সঙ্গে ফেসবুকে আমার পরিচয়। বিভিন্ন সময় তার সঙ্গে ম্যাসেঞ্জারে আমার কথা হতো। এ থেকে প্রেমের দাবি নিয়ে বিয়ের দাবিতে সে আমার বাড়িতে অবস্থান করছি।

কাওরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য আলম খান জানান, এ বিষয়ে দুই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বসা হয়েছিল। ছেলের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো প্রতিশ্রুতি না পাওয়ায় বিষয়টি সমাধান করা সম্ভব হয়নি।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান প্রতিদিনের বাংলাদেশকে জানিয়েছেন, পুলিশ সদস্যর বাড়িতে কলেজ শিক্ষার্থী বিয়ের দাবিতে অবস্থানের কোনো ঘটনা আমার জানা নেই। এ ধরনের ঘটনা এখনো কোনো অভিযোগ থানায় আসেনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন