ঢাকাসোমবার , ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ভালোবাসায় ভরপুর মাস ফেব্রুয়ারি!

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২২ ৪:১৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

প্রতিদিনের বাংলাদেশঃ কারও কারও মতে, ভালোবাসার আবার দিনক্ষণ কীসের! প্রতিটি দিনই প্রিয় মানুষকে ভালোবাসার দিন। ভালো রাখার আপ্রাণ চেষ্টা। কিন্তু কেউ কেউ সে মতকে উড়িয়ে দিয়ে ভালোবাসা দিবসের উপর জোর গুরুত্ব দিচ্ছেন। ফেব্রুয়ারি মাস মানেই ভালোবাসায় ভরপুর এক মাস। বিশেষ করে তরুণদের জন্য এই মাস একটু বাড়তি উচ্ছ্বাসের, উদ্দীপনার। কেউ কেউ অধীর অপেক্ষার প্রহর গোনেন এ মাসের জন্য। আবার কেউ কেউ প্ল্যান-পরিকল্পনা সেরে রাখেন বহু আগেই। তো জেনে নিন ভালোবাসায় ভরপুর এ মাসের দিন তারিখ-

ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেই রোজ ডে। আজ ৭ ফেব্রুয়ারি ‘রোজ ডে’ বা গোলাপ দিবস। এদিন প্রিয় মুনষটিকে গোলাপ দিয়ে ভালোবাসা বা ভালোলাগা প্রকাশ করা হয়। যদিও বাহারি রঙের গোলাপ ভিন্ন ভিন্ন বার্তা বহন করে।

এ মাসের ৮ ফেব্রুয়ারি ‘প্রপোজ ডে’। অর্থাৎ আগের দিনের ভালোলাগা বা ভালোবাসা প্রকাশের পরই পরের দিন প্রস্তাব দিবস। এদিন প্রিয়জনকে প্রোপোজ অর্থাৎ প্রেম নিবেদন করার দিন। প্রস্তাবে উভয় পক্ষের সম্মতিতে এ দিনটি হয়ে উঠতে পারে কারও জীবনের অবিস্মরণীয় দিন।

প্রস্তাব দিবসের পরের দিনই আবার ‘চকোলেট ডে’। অর্থাৎ ৮ ফেব্রুয়ারি স্মিত হেসে মৌন কিংবা সহাস্য চেহারায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে সম্মতি প্রদানের পর একটু মিষ্টমুখ না করলে কি চলে? সম্পর্কের শুরুটা মিষ্টিমুখ দিয়ে শুরু করতেই পরের দিন ৯ ফেব্রুয়ারি ‘চকোলেট ডে’।

শুরু হলো প্রেম। প্রেমের সম্পর্কে উপহার দেওয়া-নেওয়া তো একটা অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়ায়। শুরুর দিকে আদুরে-আহ্লাদি প্রেমিকাকে একটা টেডি বিয়ার গিফট করা তো যেতেই পারে; যাতে টেডি বিয়ারের কোমল স্পর্শে খুনসুটি করা প্রেমিককে সহজেই অনুভব করা যায়। তাই তো ১০ ফেব্রুয়ারি ‘টেডি বিয়ার ডে’।

এর পরের দিনই ভালোবাসার সম্পর্ক দৃঢ় ও মজবুত করতে ১১ ফেব্রুয়ারি প্রতিশ্রুতি দিবস হিসেবে পালন করে প্রেমে মগ্ন তরুণ-তরুণীরা। যেকোনো পরিস্থিতিতে সঙ্গে থাকার অঙ্গীকার সম্পর্ককে করে তোলে দীর্ঘজীবী।

এরপর ১২ ফেব্রুয়ারি দিনটিকে ‘হাগ ডে’ বা আলিঙ্গন দিবস হিসেবে পালন করা হয়। ভালোবাসার সম্পর্কে নানা টানাপড়েন হয়েই থাকে। এ সবই মুহূর্তেই দূর করতে পারে একটি আলিঙ্গন। হাগ ডে বা আলিঙ্গন দিবসের গুরুত্ব এটিই।

এরপরের দিনই ১৩ ফেব্রুয়ারি ‘কিস ডে’ বা চুমু দিবস। এরপরে ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসার মাসের ভালোবাসার শেষ দিবস ‘ভ্যালেন্টাইন্স ডে’ বা ‘ভালোবাসা দিবস’। নিজের ভালোবাসাকে আরও গভীরভাবে জানান দেওয়ার দিন এটি। ভালোবাসার মাসের সবচেয়ে আনন্দের ও উচ্ছাসের দিন এটি।

আপনার মন্তব্য লিখুন