ঢাকামঙ্গলবার , ৬ জুলাই ২০২১
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লালমনিরহাটের আবাসনের বাসিন্দারা স্বাস্থ্য বিধি মানছে না, উপসর্গ নিয়ে অবাধ বিচরণ!

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
জুলাই ৬, ২০২১ ৬:০৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মামুনুর রশিদ (মিঠু), লালমনিরহাট।। লালমনিরহাটের দহরিদ্রদের জন্য নির্মিত আবাসনের বাসিন্দারা পেটের তাগিদে স্বাস্থ্য বিধি না মেনে করোনা উপসর্গ নিয়ে অবাধ চলাফেরা করছে।

লালমনিরহাট পৌরসভার ২টি আবাসনের ৩১০ টি পরিবারে মোট ৭০০ জন মানুষ গত ২০০৯ ও ২০১০ সাল থেকে বসবাস করে আসছেন। কিন্ত গত ২০২০ সালের মার্চ মাসে করোনা ভাইরাস দেখা দিলে, গত ১৭ মার্চ থেকে বাংলাদেশে দফায় দফায় লকডাউন চলছে। এতে লালমনিরহাটের ওই আবাসনের বাসিন্দারা কর্মহীন হয়ে পড়লেও অনেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় কর্মের জন্য ছুটে যায়। এতে ওই দিন মজুর মানুষ গুলো জীবানু বহন করে চললেও তারা লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে কিংবা কোন চিকিৎসকের নিকট পরীক্ষার জন্য যায় না। তারা করোনা কি, অনেকে তা এখনো বুঝে না। ফলে দিন দিন ওই আবাসনে বসবাসরত বাসিন্দাদের মাঝে সর্দি ও জ্বরে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

মঙ্গলবার ৬ জুলাই সাপটানা আবাসন প্রকল্প কমিটির সভাপতি মোঃ রাশেদ ইসলাম জানান, আমাদের আবাসনে ৭০০ জন জনসংখ্যার মাঝে ৫০/৬০ জন শিশুসহ মহিলা ও পুরুষ জ্বর ও সর্দীতে আক্রান্ত হয়ে হর হামেশেই শহর-বন্দরে চলাফেরা করছেন পেটের তাগিদে। ভালো মতো চিকিৎসা না করার কারনে দিন দিন রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
আবাসনের বাসিন্দা মজিবর রহমান জানান, আবাসনের মানুষ অধিকাংশই দিনমজুর, কাজ না করলে পেটে ভাত জোটেনা। বদিয়ার রহমানসহ আবাসনের অনেকেই জানিয়েছে, কাজের প্রয়োজনে তাঁদেরকে বিভিন্ন জায়গায় ছুটে বেড়াতে হয়।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক মোঃ আবু জাফর জানান, আবাসনের মানুষ সরকারি হাসপাতালে ফ্রি চিকিৎসাসেবা নিতে পারবেন। তারা জেনো সরকারি চিকিৎসা গ্রহন করে নিজেরা সুস্থ থাকেন। এবং অপরকেও নিরাপদ রাখেন।

এলাকাবাসী জানান, আবাসনের বাসিন্দারা স্বাস্থ্য বিধি না মানায় দিন দিন জ্বর ও সর্দিতে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। হয়তবা জরুরি ব্যবস্তা গ্রহন করা না হলে করোনার ভয়াবহ ছোবলের আশংকা রয়েছে আবাসনে।

আবাসনের লোকজন হরহামেশাই এমন জীবাণু নিয়ে শহর-বন্দরে চলাফেরা করার কারনে বিশেষ করে লালমনিরহাট পৌরসভায় করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ার আশংকা করছেন এলাকার সচেতন মহল। অপরদিকে আবাসনের একাধিক মানুষ লকডাউনে বেকার হয়ে পরায় মানবেতর জীবন যাপন করছেন তারা।

মোঃ মামুনুর রশিদ (মিঠু), লালমনিরহাট।
মোবাইলঃ ০১৭২২-২৫০৫২০

আপনার মন্তব্য লিখুন