ঢাকাসোমবার , ১ মার্চ ২০২১
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

লালমনিরহাটে সাংবাদিককে গাছে বেঁধে পেটানোর হুমকি, থানায় অভিযোগ

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
মার্চ ১, ২০২১ ১:০৫ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

আশরাফুল হক, লালমনিরহাট : লালমনিরহাট সদর উপজেলায় সাংবাদিক রনজিৎ কুমার রায়কে প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের কোদালখাতা গ্রামে ডা. দিনেশ চন্দ্রের বাড়িতে এমন ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মোগলহাট ইউনিয়নের কোদালখাতা সার্বজনীন রাধা গোবিন্দ দূর্গা মন্দিরে “অষ্টপ্রহর ব্যাপী নামযজ্ঞ অনুষ্ঠান” দেখার জন্য যান সাংবাদিক রনজিৎ কুমার রায়৷ অনুষ্ঠানে দুপুর ১২ টায় উপস্থিত না হওয়ার কারণে একই এলাকার ডা. দিনেশ চন্দ্র এবং তার দুই ছেলে দিলীপ কুমার এবং প্রদীপ কুমার সাংবাদিক রনজিৎ কুমার রায়কে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। উল্লেখ্য যে, প্রদীপ কুমার সদর উপজেলার কাজীর চওড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে ৫০০০/- চাঁদা না দেয়ার কারণে রনজিৎকে গাছের সাথে বেঁধে রাখার হুমকি দেয়। রণজিৎ কুমার চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে ডা. দিনেশের নেতৃত্বে তার দুই ছেলে দিলীপ ও প্রদীপ কুমার সাংবাদিক রনজিৎ এর শার্টের কলার ধরে ২৪ ঘন্টার মধ্যে চাঁদার টাকা দেয়ার আল্টিমেটাম দেয় ও চর-থাপ্পর মেরে তাদের বাড়ির ভিতরে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ৷ রনজিৎ এর আত্ম চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে রনজিৎ কুমার রায়কে উদ্ধার করে। এ সময় ডা. দিনেশ চন্দ্রসহ তার দুই ছেলে বলে চাঁদার টাকা না দিলে হাত-পা ভেঙে দেব নতুবা সুযোগ করে রাতের বেলা যখম করব৷

এমতাবস্থায় সাংবাদিক রনজিৎ কুমার রায় নিরুপায় হয়ে ২৮ ফেব্রুয়ারি লালমনিরহাট সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন৷ সাংবাদিক রনজিৎ কুমার রায় দৈনিক আলোকিত সকাল পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

লালমনিরহাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও এস এ টিভির লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি আশিকুর রহমান ডিফেন্স বলেন, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। এ ঘটনার আমি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

লালমনিরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহা আলম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

আপনার মন্তব্য লিখুন