ঢাকাবুধবার , ২০ অক্টোবর ২০২১
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

সুন্দরগঞ্জের সোনারায় ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক পেতে একই পরিবারের ৩ ভাইয়ের দৌড়ঝাঁপ!

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
অক্টোবর ২০, ২০২১ ১১:১৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

রাশেদুল ইসলাম রাশেদ,স্টাফ রিপোর্টারঃ গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ২ নং সোনারায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে মনোনয়ের প্রতিযোগীতায় নেমেছেন একই পরিবারের তিন ভাই । একই পদে তাদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের বিষয়টি নিয়ে ভোটারদের মধ্যে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে নেতিবাচকে পরিণত হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ভোটের রাজনীতিতে ইতোমধ্যে নানা মেরুকরণ শুরু হয়েছে। কোন ভাই এর সঙ্গে কে থাকবেন ? কোন ভাই প্রার্থী হলে কারা সমর্থন দেবেন? চলছে সেই হিসাব-নিকাশ। তবে শেষ পর্যন্ত নৌকার বৈঠা কে পাবেন? আর নৌকা প্রতীক না পেলে বিদ্রোহী কিংবা স্বতন্ত্র পদে তিন ভাই এর মধ্যে কেউ থাকবে কি-না; এই বিষয়টি নিয়েই ভোটারদের মাঝে সমীকরণটা কিছুটা জটিল।

সোনারায় ইউনিয়নের ফতেখাঁ গ্রামের মৃত তোজাম্মেল হক এর নৌকা প্রার্থী তিন পুত্ররা হলেন, সোনারায় ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ বদিরুল আহসান সেলিম, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু নাছের মিরান ও ৯ নং ওয়ার্ড শাখার সভাপতি সৈয়দ আবু হোরায়রা জেলানী।

আগামী ২৮ নভেম্বর সোনারায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়তে তিন ভাই মনোনয়নপত্র জমা দেন। এদিকে সোনারায় ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক’রা জানান, বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ বদরুল আহসান সেলিমকে ঠেকাতে তার অপর দুই ভাইকে মনোনয়নপত্র তুলতে বলা হয়েছে। কারণ তিনি আওয়ামী লীগের কোনো পদে নেই!

এদিকে বর্তমান চেয়ারম্যান সৈয়দ বদিরুল আহসান সেলিম নিজেকে আওয়ামী লীগের নেতা দাবি করে গণমাধ্যমকে জানান, আমার জীবনের প্রথম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের সময় আমি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলাম এবং পরপর দুইবার নির্বাচিত হই।

অন্যদিকে, অপর প্রতিদ্বন্দ্বী ভাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু নাসের মিরান মুঠোফোনে জানান, দলীয় কোনো কর্মকান্ডে বর্তমান চেয়ারম্যান সেলিমকে আমরা পাই নি। তিনি বর্তমানে দলের কোনো পদ-পদবীতে নেই । এজন্যই প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে জনগণের সাড়া নিয়ে নির্বাচনের মাঠে আমি নেমেছি।

এসব বিষয়ে জানতে আর এক প্রতিদ্বন্দ্বী ভাই ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড শাখার সভাপতি সৈয়দ আবু হোরায়রা জেলানীর সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও, তাকে পাওয়া যায় নি৷

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক হাফিজা বেগম কাকলী সোনারায় ইউনিয়নের একই পরিবারের তিন ভাই দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা দেয়ার সত্যতা মুঠোফোনে নিশ্চিত করেছেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন