ঢাকামঙ্গলবার , ৩০ নভেম্বর ২০২১
  1. Covid-19
  2. অপরাধ ও আদালত
  3. অর্থনীতি
  4. আন্তর্জাতিক
  5. ইসলাম ডেস্ক
  6. কৃষি ও অর্থনীতি
  7. খেলাধুলা
  8. জাতীয়
  9. তথ্য-প্রযুক্তি
  10. দেশজুড়ে
  11. নির্বাচন
  12. বানিজ্য
  13. বিনোদন
  14. ভিডিও গ্যালারী
  15. মুক্ত মতামত ও বিবিধ কথা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে!

প্রতিবেদক
প্রতিদিনের বাংলাদেশ
নভেম্বর ৩০, ২০২১ ৬:৩০ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মনজু হোসেন, স্টাফ রিপোর্টারঃ পঞ্চগড় সদর উপজেলার গড়িনাবাড়ি ইউনিয়ের নতুনহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের স্কুল বোর্ডের কাগজ দেখিয়ে নোটারী পাবলিক সই করে আব্দুর রহিম সহকারী শিক্ষকের বিরুদ্ধে এস,এস,সি পরীক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগে জানা যায়, গত ২৪ নভেম্বর গড়িনাবাড়ি নতুনহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা। অভিযোগে তিনি বলেন দীর্ঘ দিন ধরে আমার মেয়েকে বিভিন্ন ভাবে প্রলোভন দেখায় এতে করে কনো প্রকার সারা না পেয়ে সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহিম এস,এস,সি পরীক্ষার স্কুল বোর্ডের কাগজে আমার মেয়ের অজান্তে ঢাকা জর্জ কোর্ডের সহকারী আইনজীবির মাধ্যমে নোটারী পাবলিক কাগজে সই করে নেন। বিষয়টি ওই স্কুল ছাত্রীকে জানিয়ে বিভিন্ন প্রকার লোভলালশা দিয়ে ধর্ষণ করে।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে ওই স্কুল ছাত্রী ভারসাম্য হারিয়ে অসুস্থ্য হয়ে পরলে পরিবারের লোকজন জানতে পারে সে ঘটনার বিবরণ দেয়। এতে প্রাথমিক ভাবে তার বাবা বিদ্যালয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

এঘটনায় জানা জানি হলে সহকারী স্কুল শিক্ষক আব্দুর রহিম ২৩ নভেম্বর প্রধান শিক্ষকের বরাবরে একটি লিখিত দেয় ৬ দিনের জন্য ছুটির আবেদন করেন। স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ এলাকায় ছড়াছড়ি এবং ওই শিক্ষকের ছুটির দিন শেষ হওয়ায় স্থানীয় এলাকার অভিভাবক ও সর্বসাধারণ স্কুল এবং সড়ক অবরোধ করে। খবর পেয়ে পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনে।

এলাকার ব্লক ওয়ার্ড সভাপতি শ্রী কালু রাম তিনি জানান, সহকারী স্কুল শিক্ষক আব্দুর রহিম ইতিপূর্বে নতুনহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের আরও এক ছাত্রীকে বিভিন্ন ভাবে প্রণচনায় ভয়ভীতি দেখিয়ে বিয়ে করেন এবং দুই থেকে তিন বছর সংসার করে তাকে ছেড়ে দেন এবং প্রথম স্ত্রীর মামলায় জেল হাজতে থাকেন তিনি। এভাবে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন এর সুষ্ঠ বিচার দাবী করছি।
এস,এস,সি পরীক্ষার্থীর চাচার সাথে কথা হলে তিনি বলেন আমার ভাতিজীকে দীর্ঘ তিন বছর ধরে বিভিন্ন ভাবে প্রলোভন দেখিয়ে আসতো বিদ্যালয়ের কাগজে সই দেখিয়ে ভুয়া নোটারী পাবলীক কাগজ বানিয়ে তাকে ধর্ষণ করে আমি তার সুষ্ঠ তদন্তে ও বিচার চাই এবং এই স্কুলে আর তাকে শিক্ষকতা করতে না দেখি।

ধর্ষীতা স্কুল ছাত্রীর সাথে কথা হলে জানা যায়, এস,এস,সি পরীক্ষার বোর্ডের কাগজের নামে নোটারী পাবলিক কাগজে সই করে আমার সাথে প্রতারণা এবং বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি ও লোভলালশা দেখিয়ে আমাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন আব্দুর রহিম সহকারী শিক্ষক। আমি তার বিচার চাই।
এদিকে নতুনহাট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, সহকারী শিক্ষক আব্দুর রহিম ২৩ নভেম্বর একটি লিখিতে ৬ দিনের ছুটির আবেদন করেন আমি সেটা না মনজুর করি। আমার স্কুলের এস,এস,সি পরীক্ষার্থীর সাথে অনৈতিক সম্র্পক ও ধর্ষণের অভিযোগ এসেছে আমার বরাবরে এব্যাপারে ৫ সদস্য স্কুল শিক্ষক কমিটি গঠন করে দিয়েছি তাদের প্রতিবেদনে সত্যতা উঠে আসলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ৫ সদস্য বিশিষ্ট স্কুল শিক্ষক কমিটি সহকারী শিক্ষক জাহাঙ্গির আলম তিনি জানান সরজমিনে তদন্ত রিপোর্ট প্রতিবেদন করি নাই কারণ ওই প্রতিবেদন রিপোর্ট গ্রহণ থাকবে না এজন্য আমরা স্কুল শিক্ষক।

অভিযুক্ত স্কুল শিক্ষক আব্দুর রহিমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি এব্যাপার কোন মন্তব্য করতে চায় নাই এবং ছুটির ব্যাপার কথা বললে বিষয়টি এরিয়ে যায়।

আপনার মন্তব্য লিখুন